1. sm.khakon@gmail.com : admin :
  2. rayhansumon2019@gmail.com : rayhan sumon : rayhan sumon
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০২:৫০ অপরাহ্ন

লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যেতে অনুপ্রেরণা জোগাতেন বেগম মুজিব : এমপি মজিদ খান

বিশেষ প্রতিনিধি
  • মঙ্গলবার, ৮ আগস্ট, ২০২৩
  • ১৮৮ বার পড়া হয়েছে
ছবি : আলোচনা সভায় বক্তব্য দিচ্ছেন হবিগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য ও সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব অ্রাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান ।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের ৯৩তম জন্মদিন উপলক্ষে বানিয়াচংয়ে আলোচনা সভা, দু:স্থ-অসহায় মহিলাদের মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরণ ও আর্থিক সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (৮আগস্ট) বেলা ১১টায় উপজেলা পরিষদ হলরুমে এ এসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহের সভাপতিত্বে ও পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক কর্মকর্তা সুদীপ দেবের সঞ্চালনায় এ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বানিয়াচং আজমিরীগঞ্জ (হবিগঞ্জ ২) আসনের সংসদ সদস্য ও সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আলহাজ¦ অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ খান।

বিশেষ অতিথি ছিলেন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হাসিনা আক্তার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো.নাজমুল হাসান, বানিয়াচং থানার ওসি মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসাইন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি মজিদ খান বলেন, বায়ান্ন থেকে শুরু করে একাত্তর অবধি যে সংগ্রাম পরিচালিত হয়েছিল সেই সংগ্রামে বেগম মুজিব বঙ্গবন্ধুর পিছনে ছায়ার মতো ছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে বেগম মুজিবের যখন বিয়ে হয়ে তার বয়স ছিল ৩০ আর বঙ্গবন্ধুর বয়স ছিল ২০ বছর।

পৃথিবী তখনো বর্তমান সভ্যতার আলোকিত পর্বে উদ্ভাসিত হয়নি। তবুও শৈশব থেকে চির সংগ্রামী মুজিবকে জীবনের শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত যিনি আগলে রেখেছিলেন অপার মমতা ও ভালোবাস দিয়ে, সংগ্রামে সাহস দিয়ে, তিনি হচ্ছেন বেগম মুজিব। যার ছিলনা কোনো লোভ, মোহ। যিনি চেয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু মুজিব আপোষহীন দৃঢ়তায় এক মহান নেতার নেতৃত্বে স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়।

ছবি : বেগম মুজিবের অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করছেন প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

জাতির জনকের রাজনৈতিক দর্শন ও আদর্শকে বাস্তবায়ন করতে পেছন থেকে কাজ করেছেন শেখ মুজিবের প্রিয় রেণু। বঙ্গবন্ধু, বাঙালি ও বাংলাদেশ যেমন একই সূত্রে গাঁথা, তেমনি বঙ্গমাতা ও অবিচ্ছেদ্য মনে করেন বর্ষীয়ান রাজনীতিকরা।

এমপি মজিদ খান আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু যখন কারাগারে নেতৃত্বেও প্রশ্নে আওয়ামী লীগ এবং ছাত্রলীগের মধ্যে যখনই কোনো সংকটের কালো ছায়া ঘনীভূত হয়েছে বেগম মুজিব সেই কালো ছাড়া দুর করারা জন্য পর্দার অন্তরালে থেকে দৃঢ় কৌশলী এবং বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেছিলেন বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব।

বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ ছয় দফা ঘোষণার পর বঙ্গবন্ধু যখন বারবার পাকিস্তানি শাসকদের হাতে বন্দি জীবনযাপন করছিলেন, তখন আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা ফজিলাতুন নেছা মুজিবের কাছে ছুটে যেতেন। তিনি তাদের বঙ্গবন্ধুর বিভিন্ন দিকনির্দেশনা পৌঁছে দিতেন ও লড়াই-সংগ্রাম চালিয়ে যেতে অনুপ্রেরণা জোগাতেন।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান হাসিনা আক্তার, বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ দেলোয়ার হোসাইন, আলিয়া মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপাল মাওলানা আতাউর রহমান, জেলা শ্রমিক লীগের সহ-সভাপতি প্রফুল্ল চন্দ্র বৈষ্ণব, বানিয়াচং মডেল প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা শাহিবুর রহমান, বানিয়াচং মডেল প্রেসক্লাবের সভাপতি জীবন আহমেদ লিটন প্রমুখ।

আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন,উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সামছুল হক, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মলয় কুমার দাস, সমাজসেবা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম প্রধান, কৃষিবিদ এনামুল হকসহ প্রশাসনের সর্বস্তরের কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিকবৃন্দ।

আলোচনা সভার পূর্বে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিবের অস্থায়ী প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

সামাজিক মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
বানিয়াচং মিরর  © ২০২৩, সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।
Developer By Zorex Zira

Designed by: Sylhet Host BD