1. sm.khakon@gmail.com : admin :
  2. rayhansumon2019@gmail.com : rayhan sumon : rayhan sumon
মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ০৩:২০ পূর্বাহ্ন

বিশ্বকাপ ক্রিকেট ২০২৩ এনালাইসিস : ম্যাচ নং- ৫ ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া

সৈয়দ সুহেল রানা
  • রবিবার, ৮ অক্টোবর, ২০২৩
  • ১৮৭ বার পড়া হয়েছে

৫ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৬ উইকেটের সহজ জয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করলো ভারত।

রবিবার ৮ (অক্টোবর) ভারতের চেন্নাইয়ের এমএ চিদাম্বারাপ স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ভিরাট কোহলির অবিশ্বাস্য ক্যাচে ভোমরার বলে ফেরে মিচেল মার্শ।

মার্শ আউট হওয়ার পর ওয়ার্নারের সাথে জুটি গড়ে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন স্টিভেন স্মিথ। তবে কুলদীপ যাদবের বলে ওয়ার্নার ফিরতেই ম্যাচের চিত্র পাল্টাতে শুরু করে!

ওয়ার্নার আউটের সময় ১৭ তম ওভারে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ছিলো ৭৪ রান।তারপর স্লো হতে শুরু করে অজিদের রানের চাকা।

দুই প্রান্ত থেকেই স্পিনাররা চেপে ধরে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়ন দের! এর ফলও পায় ভারত।১১০ রানে জাদেজার দারুণ বোলিংয়ের সরাসরি বোল্ড হয়ে ফেরে স্মিথ।

এর পর থেকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে একপর্যায়ে ১৪০ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ধুকতে থাকে অজিরা।শেষ পর্যন্ত ৪৯.৩ ওভারে ১৯৯ রানে অলআউট হয় অস্ট্রেলিয়া।

অস্ট্রেলিয়ার রান ২০০ এর কাছাকাছি নিয়ে যেতে শেষের দিকে গুরুত্বপূর্ণ ২৮ রান করে মিচেল স্টার্ক।

অজিদের ২০০’র নিচে আটকে রাখতে সবচেয়ে বড় অবদান রাখে রবীন্দ্র জাদেজা। স্মিথ, লাবুসেন ও কেরি তিনজন প্রথম সারির ব্যাটারকে আউট করে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং ধস নামায় জাদেজা।

জাদেজার পাশাপাশি দারুণ বোলিং করে ভারতের প্রায় সব বোলারই। আজকের ম্যাচে ভারতের গ্রাউন্ড ফিল্ডিং ছিলো অবিশ্বাস্য।

স্লিপে ভিরাট কোহলির ক্যাচটি ছিলো আউটস্ট্যান্ডিং। জাদেজার ৩ উইকেটের পাশাপাশি ভোমরা ২টি,কুলদীপ ২টি এবং সিরাজ,অশ্বিন ও পান্ডিয়া ১টি করে উইকেট পায়।

২০০ রানের টার্গেটে ২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকে ভারত! শুরুতেই স্টার্কের ওয়াড লেন্থের বলে ব্যাট চালিয়ে স্লিপে গ্রীনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরে গিলের ইঞ্জুরিতে একাদশে সুযোগ পাওয়া ইশান কিশান।

তারপর হেজলেউড এর ভিতরে ঢোকা বলে লাইন মিস করে এলবিডব্লু হয়ে ফেরে ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা। হেজলেউডের অনেক বাহিরের বলে ব্যাট চালিয়ে পয়েন্টে ওয়ার্নারের হাতে তালুবন্দি হয় আইয়ার।

ভারতীয় ব্যাটিংয়ের ৭.৩ ওভারের সময় হয় সবচেয়ে বড় মিস্টেক! হেজলেউডের বাউন্স বলে হুক শট খেলতে গিয়ে মিস টাইমিং হয় কোহলির।

কিন্তুু অবিশ্বাস্যভাবে অজি দলের সবচেয়ে ভালো ফিল্ডার মার্শ সহজ ক্যাচটি তালুবন্দি করতে ব্যর্থ হয়! এটিই ছিলো ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট।

কারন ২০ রানে কোহলি সহ দলের শীর্ষ চার ব্যাটার আউট হলে ভারতের ম্যাচে ফেরা কঠিন হতো।

এই একটি সুযোগ দেয়া ছাড়া ভিরাট কোহলির ব্যাটিং ছিলো অসাধারণ। কোহলির পাশাপাশি রাহুলও দারুণ খেলেছে। সাবলীলভাবে অসাধারণ খেলে শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়ে।

দলীয় ১৬৭ রানে ৮৫ রানের চমৎকার ইনিংস খেলে হেজলেউডের বলে আউট হয়ে ফেরে কোহলি।কোহলির আউটের পর রাহুল-পান্ডিয়া জুটি অবিচ্ছিন্ন থেকে দলকে জয়ের বন্দরে পৌছে দেয়।

রাহুল ৯৭ রানে অপরাজিত থাকে এবং পান্ডিয়া অপরাজিত থাকে ১১ রানে। অজিদের পক্ষে হেজলেউড ৩টি ও স্টার্ক ১টি উইকেট পায়।

ভারতীয় স্পিনত্রয়ী অসাধারন বোলিং করলেও স্পিনিং ট্র্যাকে অজিদের স্পিনাররা ছিলো সাদামাটা।

চাপের মুখে ৯৭ রানের অসাধারণ অপরাজিত ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয় লোকেশ রাহুল।

সামাজিক মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
বানিয়াচং মিরর  © ২০২৩, সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।
Developer By Zorex Zira

Designed by: Sylhet Host BD