1. sm.khakon@gmail.com : admin :
  2. rayhansumon2019@gmail.com : rayhan sumon : rayhan sumon
রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০১:৫১ অপরাহ্ন

বিশ্বকাপ ক্রিকেট ২০২৩-এনালাইসিস : ম্যাচ নং-০২ : পাকিস্তান বনাম নেদার‌ল্যান্ডস

সৈয়দ সুহেল রানা
  • শনিবার, ৭ অক্টোবর, ২০২৩
  • ৩৮১ বার পড়া হয়েছে

২৮৭ রানের টার্গেটে নেদারল্যান্ডস বড় ব্যবধানে হারলেও ব্যাটে বলে উজ্জ্বল ছিলো দলটির অলরাউন্ডার দে লীডি।পাকিস্তান পেয়েছে ৮১ রানের বড় জয়।

বিশ্বকাপের ২য় ম্যাচে প্রত্যাশিত বড় জয় পেয়েছে পাকিস্তান।নেদারল্যান্ডস কে অলআউট করেছে ২০৫ রানে। শাহিন আফ্রিদি ও শাদাব খান কিছুটা ছন্দ হীন হলেও হারিস রউফ ১৫০ কিঃ এর আশপাশে গতিতে বল করে নেদারল্যান্ডস খেলোয়াড়দের সমস্যা তৈরি করেছে।

ফলও পেয়েছে তাতে।গুরুত্বপূর্ণ সময়ে নিদামানুরু ও অধিনায়ক এডওয়ার্ড এর দু’টি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট সহ ৩টি উইকেট পেয়েছে। এছাড়াও হাসান আলী ২টি ও নাওয়াজ একটি উইকেট পেয়েছে দারুণ বোলিংয়ের পুরস্কার হিসেবে।

নেদারল্যান্ডস অলরাউন্ডার দে লীডি বোলিংয়ে ৪ উইকেটের পাশাপাশি ব্যাটিংয়েও ৬৭ রানের অসাধারণ ভয়ডরহীন ইনিংস খেলেছে।দে লীডি যতক্ষণ পিচে ছিলো নেদারল্যান্ডসের আশাও ছিলো ম্যাচে।এছাড়াও দলটির ভারতীয় বংশদ্ভূত ওপেনার বিক্রম জিৎ সিং ৫২ রান করেছে।

এর আগে পাকিস্তান প্রথমে ব্যাট করে সব-কটি উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করেছে ২৮৬ রান।যদিও পাকিস্তান ও সাউথ আফ্রিকাকে নিয়ে কখনোই নিখুঁত প্রেডিকশন করার সুযোগ নেই তবুও তুলনামূলক দূবল বোলিং এটাকের বিপক্ষে পাকিস্তানের ব্যাটিং দেখে মনে হচ্ছে না পাকিস্তান এবারের বিশ্বকাপ জেতার মতো দল! দু’টি প্রস্তুতি ম্যাচেও পাকিস্তান খুব একটা ভালো করতে পারেনি।

এসোসিয়েট দল নেদারল্যান্ডস এর পার্টটাইম স্পিনারদের বিপক্ষে পাকিস্তানের প্রায় সব ব্যাটারই ভুগেছে! সাউথ শাকিল(৬৮) ও রিজওয়ান (৬৮) ছাড়া কেউই বড় স্কোর করতে পারেনি।

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে এক পর্যায়ে পাকিস্তানের সংগ্রহ ছিলো ১৮৮/৬। সেই জায়গা থেকে দুই অলরাউন্ডার নাওয়াজ (৩৯) ও শাবাদ (৩২) পাকিস্তানকে মাঝারি মানের স্কোর ২৮৬/১০(৪৯ওভার) এনে দিয়েছে।নেদারল্যান্ডসের পক্ষে দে লীডি ৯ ওভারে ৬২ রানের বিনিময়ে ৪টি উইকেট লাভ করে।

এবারের বিশ্বকাপে যেভাবে রান উঠছে তার উপর পাকিস্তানের তারকা পেসার নাসিম শাহ এর অনুপস্থিতি ও নতুন বলে শাহিন শাহ আফ্রিদির কিছুটা ছন্দহীনতা পাকিস্তান বোলিং লাইনআপকে পুরো টুর্নামেন্টেই ভুগতে হবে।

এছাড়াও টুর্নামেন্টে ভালো কিছু করতে হলে টপ অর্ডার ও মিডল অর্ডার খেলোয়াড়দের বিশেষ করে ফকর জামান, ইমাম-উল হক ও ইফতেখার আহমেদকে আরও দায়িত্বশীল হতে হবে এবং দ্রুত রান তুলে বিপক্ষ বোলারদের চাপে ফেলতে হবে।কারন এবারের বিশ্বকাপে বেশিরভাগ উইকেট ই হবে ৩০০+ স্কোর উইকেট।

নেদারল্যান্ডসের অলরাউন্ডার দে লীডি বিশ্বকাপে একাদশে জায়গা পেয়ে ইতিহাসে নাম লিখিয়েছে।কারন তার বাবা টীম দে লীডও নেদারল্যান্ডসের পক্ষে বিশ্বকাপে খেলেছেন এবং শচীন ও দ্রাবিড়ের মতো লিজেন্ডস দের উইকেটও পেয়েছেন।এখন বাবা-ছেলে দু’জনই নেদারল্যান্ডস এর বিশ্বকাপ ইতিহাসের অংশ।

উল্লেখ্য,নেদারল্যান্ডস বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুয়ের মতো অভিজ্ঞ দু’টি দলকে হারিয়ে বিশ্বকাপে এসেছে।

বি : দ্র : -বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে প্রথম খেলায় এনালাইস মিস হয়েছে ।।  

সামাজিক মিডিয়ায় শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
বানিয়াচং মিরর  © ২০২৩, সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত।
Developer By Zorex Zira

Designed by: Sylhet Host BD